1. selimsavar@gmail.com : khobar24 :

লেখা-পড়ার কোনো বয়স হয় না, প্রমাণ করলেন ১০৪ বছরের কুট্টিয়াম্মা

  • সর্বশেষ আপডেট : মঙ্গলবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২১
  • ৫৪ বার পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক : বয়স সত্যিই সংখ্যামাত্র। প্রমাণ করেছেন ভারতের কেরালার কোট্টায়াম জেলার কুট্টিয়াম্মা। ১০৪ বছর বয়সে কেরালা রাজ্য সাক্ষরতা মিশন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। সম্প্রতি কোট্টায়ামের আয়রাকুন্নান পঞ্চায়েতের তরফে সাক্ষরতা পরীক্ষা পরিচালনা করা হয়। সেই পরীক্ষাতেই বসেন তিনি। তাতে তিনি শুধু যে পাশই করেছেন তাই নয়, রেকর্ড নম্বরও পেয়েছেন। ১০০-র মধ্যে ৮৯! কেরালার শিক্ষামন্ত্রী ভি শিবাকুট্টি নিজে কুট্টিয়াম্মাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি টুইট করে লেখেন, “কোট্টায়ামের ১০৪ বছর বয়সী কুট্টিয়াম্মা কেরালা রাজ্য সাক্ষরতা মিশন পরীক্ষায় ১০০-এর মধ্যে ৮৯ নম্বর পেয়েছেন।

কুট্টিয়াম্মা দেখিয়েছেন লেখা-পড়ার কোনো বয়স হয় না। শ্রদ্ধা এবং আন্তরিক ভালবাসার সঙ্গে আমি তাকে এবং অন্যান্য নতুন শিক্ষার্থীদের শুভকামনা জানাই।” এই শুভেচ্ছা বার্তার পাশাপাশি তিনি কুট্টিয়াম্মার একটি ছবিও টুইট করেছেন।

ভারতের মধ্যে সাক্ষরতার হার সবচেয়ে বেশি এই কেরালায়। কেরালা রাজ্য সাক্ষরতা মিশন অথরিটি রাজ্যের সকল নাগরিকের জন্য সাক্ষরতা, শিক্ষার প্রচার করে এই গৌরব এনেছে রাজ্যে। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা ১০৪ বছর বয়সী একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষার প্রতি আবেগ দেখে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন। অনেকেই আশা করছেন, কুট্টিয়াম্মা নতুন প্রজন্মকে তাঁর এই কীর্তির দ্বারা অনুপ্রাণিত করবেন।

কেউ কেউ বলেছেন, কুট্টিয়াম্মার গল্প তাদের নিজেদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে অনুপ্রাণিত করেছে। আবার কেউ বলছেন, ১০৪ বছর বয়সী মহিলার কৃতিত্ব প্রমাণ করেছে যে নিছক ইচ্ছাশক্তি আপনাকে যেকোনো মাইলফলক অর্জন করতে সহায়তা করতে পারে। কুট্টিয়াম্মা শৈশবে কখনো স্কুলে যাননি। সম্প্রতি, তিনি রাজ্য দ্বারা অনুষ্ঠিত সাক্ষরতা ক্লাসে যোগ দিতে শুরু করেন ।

ANI অনুসারে, কুট্টিয়াম্মাকে তার শিক্ষকরা মালায়ালামে পড়তে এবং লিখতে শিখিয়েছিলেন এবং এখন তিনি সংবাদপত্র পড়তে পারেন এবং চিঠিও লিখতে পারেন। সাক্ষরতা পরীক্ষায় তার চমকপ্রদ পারফরম্যান্স দেখে কুট্টিয়াম্মাকে এখন ক্লাস ৪ -এ উপস্থিত হওয়ার যোগ্য বলে মনে করছেন শিক্ষকরা৷

কেরালা ভারতের এমন একটি রাজ্য যেখানে স্বাক্ষরতার হার ৯৬.২% আদমশুমারি অনুসারে, রাজ্যের প্রায় ৯২.০৭ % শতাংশ মহিলা এবং ৯৬.১১ % পুরুষ শিক্ষিত। কেরালা রাজ্য সাক্ষরতা মিশন কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য হল রাজ্যের সমস্ত নাগরিকদের জন্য আজীবন শিক্ষা এবং সাক্ষরতার প্রচার করা।

সূত্র : firstpost.com

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন :